মেয়ে আপনাকে ভালোবাসে প্রকাশ করেনা এই কাজটি করুন

মেয়ে আপনাকে মনে মনে ভালবাসে কিন্তু প্রকাশ করে না । এই তিনটি কাজ করুন প্রকাশ করতে বাধ্য হবে আপনি যে মেয়েকে এখনো পটানোর চেষ্টা করেই যাচ্ছেন হতে পারে সে মেয়ে অলরেডি আপনাকে মনে মনে ভালোবেসে বসে আছে ।

কিন্তু সেটা সে প্রকাশ করে না অথবা আপনি যে মেয়ের সাথে বন্ধু হিসেবে নিয়মিত কথা বলে আসতেছেন হতে পারে সে মেয়েটিও আপনাকে অনেক আগে থেকেই মনে মনে ভালোবেসে আসতেছে কিন্তু সে আপনাকে সেটা বুঝতে দেয় না এমন হাওয়া টা কিন্তু খুবই স্বাভাবিক কারণ মেয়েরা এমনই হয় তারা মাইনকার চিপায় না পড়া পর্যন্ত তাদের ভালোবাসা প্রকাশ করতে চায়না ।

এদেরকে শুধু মানকা চিপায় না একদম ফাটা বাঁশের চিপায় ফালানোর ব্যবস্থা আজকে লিখতেছি আজকে আমি আপনাকে এমন তিনটি কৌশল শেখাবো ।

এই কৌশল গুলো আপনি যে মেয়ের সাথে খাটাবেন সেই মেয়ের মনে আপনার প্রতি বিন্দুমাত্র ভালোবাসা থাকলেও সেটা সে ইচ্ছে করে আপনার সাথে স্বীকার করতে বাধ্য হবে মেয়ে নিজেই আপনাকে প্রপোস করে আপনার সাথে রিলেশনে যেতে চাইবে তো তাহলে দেরি কেন চলুন শুরু করা যাক ।

 

কৌশল নাম্বারঃ ১

মেয়ে আপনাকে ভালোবাসে অথচ তার ভালোবাসার প্রকাশ করার ব্যাপারে একদম তাড়াহুড়ো নাই কেনো জানেন কারন । সে দেখতেছে আপনি অন্য কারো সাথে রিলেশনে যাচ্ছেন না বা যাওয়ার ।

কোন সম্ভাবনা ও সে দেখতে পায় না এবং অন্য কোন মেয়েও আপনার সাথে রিলেশন করার ট্রাই করতেছে না ফলে এখানে টেনশনের তো কিছু নাই আপনি তো আর হারিয়ে যাচ্ছেন না যে তাড়াহুড়ো করে আপনার সাথে রিলেশনে যেতে হবে তা না হলে আপনি হাত ছাড়া হয়ে যাবেন ফলে মেয়েটি তার ভালোবাসার প্রকাশ করতে আগ্রহ দেখায় না তো ।

এটা সমাধান একটাই সেটা হলো মেয়েটিকে নানাভাবে ইনডাইরেক্টলি এটা বুঝাতে হবে যে যেকোনো সময় হুট করে আপনি অন্য কোন মেয়ের সাথে রিলেশনে জড়িয়ে যেতে পারেন যেমন মনে করুন আপনি মেয়েটিকে এভাবে বললেন "অমুক মেয়ে আমার সাথে রিলেশন করার জন্য খুব করে উঠে পড়ে লেগেছে" জানো আজকে কি হয়েছে "ওই মেয়েটি আজকে আমার সাথে এই কাণ্ড করেছে ।

আমার তো মেজাজ পুরো খাড়া হয়ে গেছে কিন্তু তাকে আবার কিছু বলতেও পারছি না কি যে করি" এভাবে প্রতিটি দিন এই কাহিনীটাকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন বানিয়ে বানিয়ে শোনাতে থাকেন ।

যতদিন পর্যন্ত না মেয়েটির মনে আপনাকে হারানোর ভয়টা পাকাপোক্তভাবে গেথে না যায় । তারপর আর কি এবার দেখেন মেয়েটা ভালোবাসা আপনার কাছে প্রকাশ করার জন্য কি করছে না করছে আর হুস পাচ্ছে না তখন আপনি যদি বুঝে একটু না বোঝার ভান করেন তো দেখবেন মেয়ে উপায় না পেয়ে আপনাকে প্রপোজ করে বসেছে।


কৌশল নাম্বার ২


মেয়ে আপনাকে ভালোবাসে অথচ সে আপনাকে প্রপোজ করে আপনার সাথে ক্লিয়ারলি রিলেশনে যাওয়ার প্রতি আগ্রহ দেখাচ্ছে না । এর পেছনে দুটি কারণ হতে পারে এক প্রপোস করে রিলেশনে গেলে যে সুবিধা যে মজাগুলো পাওয়ার কথা সেগুলো সে এখনো এমনিতেই পাচ্ছে ।

তাই প্রপোজ করে রিলেশনে যাওয়া নিয়ে তার আগ্রহ নাই দুই প্রপোজ করে রিলেশনে গেলে কি কি মজা পাওয়া যাবে সেটা সে জানে না ফলে প্রপোজ করে রিলেশনে যাওয়া নিয়ে তার তেমন কোন আগ্রহ আসতেছে না তো এই দুইটি কারণের মাঝে কারণ যেটাই হোক তার সমাধান হলো মেয়েটির সাথে প্রকাশ্যে রিলেশনে না গিয়েও এতদিন থেকে মেয়েটিকে যদি বয় ফ্রেন্ডের মত সার্ভিস দিয়ে থাকেন ।

তাহলে সেগুলো বন্ধ করে দিন এবং তার সাথে সাধারণ বন্ধুর মতো আচরণ করুন এবং তাকে নানাভাবে বোঝান যে আপনার গার্লফ্রেন্ড হলে আপনি আপনার গার্লফ্রেন্ডের সাথে এটা করবে ওটা করবেন এ দুষ্টামি করবেন ওই দুষ্টামি করবেন ইত্যাদি ।

এবার মেয়ে মানকার চিপায় পড়ে যাবে মেয়েটি যেহেতু মনে মনে আপনাকে ভালোবাসে ফলে সে আপনার থেকে বয় ফ্রেন্ডের মত আচরণ আশা করবে কিন্তু আপনি তো সেগুলো করছেন না কারণ আপনি সেগুলো গার্লফ্রেন্ডের সাথে করবেন বলে তাকে ইনডাইরেক্টলি বুঝিয়ে থাকেন ।

সে তো আপনার গার্লফ্রেন্ড না এবার মেয়ে আপনার থেকে বয় ফ্রেন্ডের মত কেয়ার বা বয় ফ্রেন্ডের মত আচরণ আদায় করতে গিয়ে উপায় না পেয়ে তার ভালোবাসা প্রকাশ করে ফেলবে বা আপনাকে প্রপোজ করে ফেলবে


কৌশল নাম্বার ৩

যদি কোন মেয়ে মনে মনে আপনাকে ভালোবেসে থাকে তাহলে সে আপনার সাথে সারাক্ষণ কথা বলতে চাইবে আপনার সাথে বেশি বেশি মিশতে চাইবে আপনার উপর ইনডাইরেক্টলি গার্লফ্রেন্ডের মত অধিকার ফলনের চেষ্টা করবে ।

আর এইগুলো যদি সব ঠিকঠাক ভাবে পায় তাহলে তার আর তো কোন আপত্তি নাই আপনাদের মাঝে বন্ধুত্বের সম্পর্ক চলতেছে নাকি আপনাদের মাঝে বয়ফ্রেন্ড-গার্লফ্রেন্ডের সম্পর্ক চলতে এগুলো নিয়ে তার মাথা ঘামানোর কোন কারণই আসে না ।

ফলে সে আপনাকে প্রপোজ করা বা তার ভালোবাসার প্রকাশ করার ব্যাপারে কখনোই তারা হলো দেখাবেনা.আর আপনার ক্ষেত্রে হয়ত এমন টাই হয়েছে তো এটা সমাধান হলো মেয়েটিকে সময় এবং অধিকার এই দুইটি জিনিস দেওয়ার দিন কে দিন কমিয়ে দিতে থাকুন তাহলে দেখবেন মেয়ে পাগল হওয়ার মত অবস্থা হয়ে যাবে ।

মেয়ে না পারবে গার্লফ্রেন্ডের মত করে ডাইরেক্টলি তার অধিকার চাইতে না পারবে আপনি তাকে কম সময় দিচ্ছেন বলে গার্লফ্রেন্ডের মত করে রাগ বা অভিমান করতে তখন সে উপায় না পেয়ে রিলেশনে যাওয়ার জন্য রেডি হয়ে যাবে এবং রিলেশনে গিয়ে তার পাওয়ার বা ক্ষমতা সে আদায় করে নেবে ।

তারপর আর কি বয়ফ্রেন্ডের অধিকার পাচ্ছিলেন না বলে এতদিন থেকে যে চুল ছিঁড়তে পারেনি এখন সেই চুল ছিঁড়েন আর গার্লফ্রেন্ড হচ্ছিল না বলে এতদিন তো খুব কেঁদে কেঁদে চোখের জলে কাপড় ভেজাতেন এখন কোন জলে কাপড় ভেজান সেটাই দেখি?

Comments

You must be logged in to post a comment.