ফেসবুক মার্কেটিং করে আয় : ফেসবুক মার্কেটিং করে মাসে ২০-৩০ হাজার টাকা ইনকাম করা যায়

বর্তমান এই ইন্টারনেটের যুগে মানুষ আর বেকার বসে নাই। ঘরে বসে ফেসবুক মার্কেটিং করে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতেছে। আজ আমি আপনাদের মাঝে শেয়ার করবো এমন একটি বিষয় কিভাবে ঘরে বসে প্রতি মাসে ২০-৩০ হাজার টাকা ইনকাম করা যায়। এই ইনকাম দিয়ে খুব সহজে সুন্দর করে একটি ছোট ফ্যামেলি চালানো যাবে। তো বন্ধুরা দেরি কেন আর শুরু করা যাক।

ফেসবুক মার্কেটিং :

আপনি যদি ফেসবুক থেকে টাকা আয় লিখে গুগল সার্চ করেন প্রায় পাঁচ লক্ষ এর বেশি রেজাল্ট পাওয়া যাবে। যা অবিশ্বাস্যকর হলেও সত্যি। তার মধ্যে বেশিরভাগই রেফারেল। এমনকি ভাইরাস ডাউনলোড এর লিংকও পাওয়া যায় মাঝে মাঝে। এভাবে অন্যের পোস্টে লাইকের বিনিময়ে টাকা আয় না করে কিভাবে সত্যিকারভাবে টাকা ইনকাম করা যায়; তা নিয়ে কিছু কথা।

সোস্যাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে আপনি আপনার পেইজ বা প্রোপাইলের মাধ্যমে যে কোন কোম্পানির পণ্য বাজারজাত করে দিবেন। আপনার ফলোয়াররা যেহেতু আপনার কথা শুনতে অভ্যস্ত তাই তাদেরকে আপনি কোন জিনিস ভালো বললে একটি গুড উইল তৈরি হবে। যেমন, সেলিব্রিটিরা যেভাবে প্রোডাক্টস এন্ডরস করে। সেভাবে আপনিও করবেন। অডিয়েন্স গড়ার জন্য শুরু করার সময় মজার কোন লেখা বা কন্টেন্ট দিয়ে ফলোয়ার বাড়াতে হবে। তারপরই তা ব্যবহার করে মার্কেটিং করতে পারবেন টাকার বিনিময়ে।

১.অনেক সময় সাইটের কাটতি বাড়ার জন্য কোম্পানি ফেসবুক ব্যবহার কারি দের কে লিংক ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য টাকা দিয়ে থাকে। দেখা মাত্র এসবে জড়িয়ে যাবেননা।কারণ এটি ভাগ্যের ব্যাপার। আবার যদি খুব বিশ্বাস যোগ্য কেউ হয় তখন কাজটি করতে পারেন।

২.টাকার বিনিময়ে অন্য কোম্পানির পেইজ আপনার পেইজ বা প্রোপাইল থেকে শেয়ার করতে পারেন। আপনার শেয়ার থেকে যদি নির্দিষ্ট পরিমাণ পণ্য বিক্রি বা লাইক শেয়ার বাড়ে তাহলে টাকা পাবেন।

৩.বাংলাদেশের আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ উপায় হচ্ছে কোন গ্রুফ বা পেইজের কভার ফটোতে আ্যাড-স্পেস বিক্রি করা।অন্যান্য সাইটে আ্যাড যেমন বিক্রি হয় এটিও টিক তাই। অনেক মেম্বারের গ্রুফের কভার ফটোতে অনেক সময় ছোট ছোট কোম্পানির আ্যাড দিয়ে থাকে।প্রায় ২৫-৩০ হাজার এক্টিভ মেম্বারের গ্রুফ এডমিনরা চেষ্টা করতে পারেন।

৪.পেজ বা গ্রুপ অ্যাডমিনরা সেটি বিক্রি করে দিতে পারেন। পেজে অনেক লাইক থাকলে মার্কেটিং এর জন্য অনেকেই সেটি কিনে নেন, গ্রুপের বেলায় ও তাই। এ কাজটি খুব ভালো নয়, তবে করা খুবই সম্ভব। এক্ষেত্রেও অ্যাডমিনরা কেনার জন্য কেউ আছে কিনা খুঁজে দেখতে পারেন। তবে খেয়াল করুন, প্রতিটি উপায়ই অস্থায়ী। কখন, কত টাকা, কিভাবে আয় হবে তার কোনও গ্যারান্টি নেই। সটিক ফ্রিল্যান্সিং ছাড়া অনলাইনে আয় করা স্থায়ী কোন উপায় নাই।

hotnewsall.com এর কথা,

প্রিয় বন্ধুরা, আপনারা যারা অনলাইন থেকে ইনকাম করতে চান তারা এই ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করতে পারবেন, এটি বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইট থেকে যে কেউ ইনকাম করতে পারবে। যদি বাংলা আর্টিকেল ভালোভাবে লিখতে পারে,

কিভাবে আর্টিকেল লিখবেন তা এখানে ক্লিক করে বিস্তারিত জেনে নিন..

লেখালেখি করে আয় করুন। বাংলাদেশী ইনকাম সাইট

 

Comments

You must be logged in to post a comment.

Related Articles