ছাত্রদের জন্য অনলাইনে আয় ৫ টি পদ্ধতি [A টু Z]

ছাত্রজীবনে অনলাইনে টাকা উপার্জনের ৫ পদ্ধতি আজ আমি আপনাদের মাঝে আলোচনা করব আপনারা যদি ছাত্রজীবনে অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে ধৈর্য সহকারে পোস্টটি ভালভাবে পড়ে নিন আমার এই পোস্টে আপনাকে স্বাগতম।

আজ আমি তোমাদের জানাতে চলেছি যে ছাত্রজীবনে টাকা উপার্জনের পাঁচটি সহজ পদ্ধতি:

1.Youtube

প্রথমে, বলতে গেলে Youtube বিষয়ে বলতে হবে। ৮ থেকে ৮০ সবার জন্য ইউটিউব একরকম একটা প্ল্যাটফর্ম যে এখান থেকে অনায়াসে ভালো অংকের টাকা ইনকাম করা যায়। তাই এখন সবার মধ্যই Youtube কাজ করার প্রবণতা বেড়ে যাচ্ছে।

ইউটিউব হচ্ছে স্টুডেন্ট এর জন্য সবথেকে সেরা অনলাইন প্লাটফর্ম যেখান থেকে টাকা ইনকাম করে দেশ দেশের বাইরে কোটি কোটি ছাত্র-ছাত্রী নিজের জীবন গড়েছে ।

একজন সাকসেসফুল ইউটিউবার হওয়ার জন্য যেটা দরকার সেটা হচ্ছে যে পর্যন্ত ইচ্ছা শক্তি এবং ধৈর্য কেননা প্রথম দিকে তোমার আপলোড করা ইউটিউব ভিডিওতে ভালো ভিউজ আসবেনা তোমার ইউটিউব চ্যানেল ভালোভাবে গ্রহ করবেনা । তা তোমরা ভি মোটিভেট হতে পারো কিন্তু তোমার মধ্য যদি প্রবল ইচ্ছাশক্তি থাকে তাহলে তুমি ভিডিও বানিয়ে যাও,

কিছু দিনের মধ্যেই সাফল্য আসবে এই ফলস্বরূপ তোমার ইউটিউব চ্যানেল ভালোভাবে গ্রহ করবে । তখন তুমি উপলব্ধি করতে পারবে শুধু ইউটিউব ভিডিও বানিয়ে ।

এখন তোমাদের প্রশ্ন হতে পারে যে, কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা উপার্জন করা যায়। কেমনে টাকা আসবে কিভাবে আসবে তা আমি নিচে ভালোভাবে বুঝিয়ে দিচ্ছি?

কত টাকা ইনকাম করা যায় প্রথমতে, ১০০০ সাবস্ক্রাইবার, ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম পূরণ করে নিতে হবে । তার পরেই গুগল এডসেন্স এর সাহায্যে ইউটিউব একাউন্ট টা কে যুক্ত করে সেখান থেকে youtube-video add এর মাধ্যমে তুমি টাকা উপার্জন করতে পারবে ।

2.Website and bologging

দ্বিতীয় উপায় যে আসছে সেটা হচ্ছে Website and bologging এর জন্য তোমাকে ক্যামেরার সামনে দাড়াতে হবে না। আর সারাদিন বসে ভিডিও এডিটিং করতে হবে না। শুধুমাত্র লেখালেখি করে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন । এর জন্য প্রথমে একটি ওয়েবসাইট বানিয়ে নিতে হবে ।

তবে সেখানে প্রতিনিয়ত লেখালেখি করতে হবে, এই ওয়েবসাইট বানানোর জন্য সামান্য কিছু টাকা লাগে । কিন্তু তোমরা যদি ফ্রিতে করতে চাও তাহলে ওয়ার্ডপ্রেসের সাহায্য এটি করে নিতে পারো ।

সেখানে প্রতিনিয়ত লেখা লেখির মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারো । শুধুমাত্র সেখানে একটা ডিজেন্টে ফার্ম রয়েছে সেটা হচ্ছে যে, ওয়ার্ডপ্রেস থেকে যে ওয়েবসাইট তৈরি করা হয় সেগুলোর পেছনে এরকম লেখা থেকে---------- . com যেখানে . com যদি তোমরা শেষে .com চাও তাহলে অবশ্যই কিছু টাকা দিয়ে তোমাকে সে ওয়েবসাইট এর ডোমেইন-হোষ্টিং পারচেজ করতে হবে।

কিন্তু আমাদের উদ্দেশ্যে হল, বিনা খরচাই মানুষকে টাকা উপার্জন পদ্ধতি দেওয়া তাই তোমরা প্রথম দিকে ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করতে পারো। তোমার কাছে টাকা থাকলে ওয়েবসাইট কিনে নিতে পারো ।

3. Photo Selling

তৃতীয় নম্বরে আসছে, Photo Selling ফটো সিলিং হচ্ছে এটা এরকম প্ল্যাটফর্ম যে যেখানে তোমরা একটা ফটো তুলে ভালো এডিটিং করে বিক্রি করতে পারলেই একটা ফটো ৫ ডলার মানে ৩৫০ টাকা (প্রায়) পর্যন্ত বিক্রি করা যায়। যা একটা বড় অপর চটি ছাত্রর জন্য।

অনেক ছাত্র আছে, যারা সারাদিন ফটো তুলতে ভালবাসে সেটা তাদের জন্য । এবং তাদের কাছে যদি বেশি কিছু না থাকে শুধু মাত্র একটি মোবাইল ফোনের ক্যামেরা যদি একটু ভালো ক্যামেরা হয় তা খুব ভালো হয় । অথবা, কোন ডিএসএলআর ক্যামেরা থাকলে তো কোন কথাই নেই সেটা দিয়ে খুব সুন্দর সুন্দর ফটো তুলে তারা Photo Selling এর মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারে । এর জন্য কিছু পেজ প্ল্যাটফর্ম যেটা প্লে স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে?

প্রথমে এই অ্যাপটি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে হবে Eye Em - Camera & Photo Filter এই অ্যাপস টি প্লে স্টোরে এভেলেবেল রয়েছে

দ্বিতীয় অ্যাপসটি রয়েছে সেটা হল Dreamstime: Sell you photo এই অ্যাপসটি মোবাইলে ডাউনলোড করার পরে সেটা কে Dreamstime দেখাবেনা, থাকবে ক্যাম্পেন ইয়ন

তৃতীয় নম্বর যে অ্যাপসটি আছে Shutterstock এই অ্যাপটি ডাউনলোড করার পরে দেখাবে contibutor এটা মোবাইলে ডাউনলোড করার পরে দেখাবে এই অ্যাপস গুলোর মাধ্যমেই তোমরা Photo Selling করতে পারো।

4.Reselling and Afflite marketing

চতুর্থ নম্বরটা হচ্ছে Reselling and Afflite marketing এটা কিন্তু সবার জন্য নয় । যদি তোমার ফ্রেন্ড সার্কেল অনেক বড় হয় অর্থাৎ অনেক বন্ধু-বান্ধব থাকে, এবং তারা যদি প্রায় অনলাইন থেকে কেনাকাটা করে থাকে তাহলে তুমি তাদেরকে Afflite এর মাধ্যমে নামি-দামি ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর প্রোডাক্ট শেয়ার করতে পারো । তাদের মধ্যে বিখ্যাত Amzon ফ্লিপ কার্ড প্রডাক্টটে এ নিজের Afflite বানিয়ে তাদের শেয়ার করা ।

তারা যদি কেনে তাহলে বড় অঙ্কের টাকা ইনকাম করতে পারবেন । কিন্তু তোমরা যদি মোবাইলের সাহায্য করতে যাও তাহলে এই অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে Earnkaro - share deals & Earn money from home যেটা সবথেকে ভালো ।

এরপর আছে, Reselling এর জন্য তোমরা এই অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে পারো । এই অ্যাপসটি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন খুব সহজেই SHOP 101 এছাড়াও MEESHO অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিতে পারো ।

তোমার বন্ধু-বান্ধব আত্মীয়-স্বজনদের ফেসবুক বা হোয়াটসঅ্যাপ এর মাধ্যমে শেয়ার করতে ও তার সাথে ফটো শেয়ার করে তুমি Reselling মাধ্যমে টাকা উপার্জন করতে পারবে ।

এর জন্য আমরা বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে জয়েন্ট হতে পারো, বিখ্যাত Reselling এর ফেসবুক গ্রুপ এর বেশি বিক্রি হয়। নন পেট গ্রুপ গুলোতে বিক্রি কম হয়, পেইন্ট বলতে যে গুলোতে টাকা দিয়ে জয়েন করতে হয়। সেগুলোতে বেশি কাস্টমার হয় সেজন্য তোমরা সেগুলোতে জয়েন্ট হতে পারো ।

5. paperboy

এরপর সর্বশেষ হচ্ছে, paperboy এর কাজ এটি হচ্ছে অফলাইন কাজ । এর জন্য তোমার কাছে মোবাইল থাকার দরকার নেই, শুধুমাত্র একটা সাইকেল থাকলেই হবে, এবং সেই সাইকেল ভালো থাকলেই হবে, এই সেই সাইকেলের মাধ্যমে তুমি তোমার প্রতি দিন বিভিন্ন জায়গায় পত্রিকা ডেলিভারি করতে হবে।

এর বিনিময় তোমরা কমিশন হিসেবে কিছু টাকা পাবে, এর জন্য তোমাকে সকালে ওঠার অভ্যাস থাকতে হবে, সকালে সবার আগে উঠতে তোমাকে পেপার ডেলিভারি করতে হবে।

এবার তোমার যদি জানতে চাও, কোথা থেকে পেপার কিনব, কোথায় গিয়ে বিক্রি করব, এর জন্য তোমাকে বা তোমার এলাকায় যে পেপার বয় আছে তার সাথে কথা বলে নিতে পারো, তার থেকে পরামর্শ নিতে পারো?

Comments

You must be logged in to post a comment.